মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৪ মে ২০১৮

মাতৃত্বকালীন ভাতার টাকার পরিমান বৃদ্ধি করা হবে - মেহের আফরোজ চুমকি, এম.পি, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়।


প্রকাশন তারিখ : 2018-05-14

 

ঢাকা, ১৩ মে, ২০১৮

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এম.পি বলেছেন, একটি সুস্থ মা‘ই পারে একটি সুস্থ সন্তানের জন্ম দিতে । আর একটি সুস্থ সমৃদ্ধ জাতি গঠনে সুস্থ স্বাভাবিক শিশু জন্মের বিকল্প নাই।  সুস্থ স্বভাবিক শিশুর জন্ম নিশ্চিত করতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়  নানাবিধ কাজ করে যাচ্ছে।  তিনি বলেন বর্তমানে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রায় ৮ লক্ষ  হত দরিদ্র নারীকে  মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান করা হচ্ছে। বর্তমান প্রতিটি মা মাতৃত্বকালীন ভাতা হিসাবে ৫০০/-টাকা করে পাচ্ছেন ।  আগামী অর্থ বছরে এ ভাতার পরিমান প্রতিমাসে ৫০০/- টাকা হতে ৮০০/-টাকায় বৃদ্ধি করা হবে। বর্তমানে একজন হত দরিদ্র মা ২ বছর পর্যন্ত  মাতৃত্বকালীন  ভাতা পেয়ে থাকেন। কিন্তু  ০ হতে ৫ বছরের মধ্যে শিশুর ৯০ শতাংশ শারীরিক ও মানসিক বিকাশ সাধিত হয়। তাই এ সময় মা ও শিশুর পুষ্টিকর খাবার খাওয়া খুবই জরুরী। এ বিষয়টি মাথায় রেখে মন্ত্রণালয়  মাতৃত্বকালীন ভাতার মেয়াদ ২ বছর থেকে বাড়িয়ে ৩ বছর করার পরিকল্পনা করছে। তিনি আজ বিকালে  রাজধানীর ইস্কাটনে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মিলনায়তনে বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষ্যে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে এক আলোচনা ও সন্মাননা প্রদান কালে প্রধান অতিথির  বক্তৃতায় এ কথা বলেন। 

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী রওশন আরার সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে আরও  উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি। 

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন ময়েদের যথাযথ সেবা নিশ্চিত করার পাশাপাশি  ভবিষ্যতে যারা মাা হবেন তাদের প্রতিও জাতীকে যতœশীল হতে হবে। এ জন্য কন্যা শিশুদের প্রতি যতœবান হতে হবে।

বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষ্যে ৫ জন স্বপ্নময়ী মাকে সন্মননা প্রদান করা হয়। বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষ্যে কঠিন সংগ্রাম কওে যে সকল মা  তাদের সন্তানদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত করেছেন এমন  ৫ জন স্বপ্নজয়ী মাকে সন্মাননা হিসেবে  প্রত্যেককে ক্রেস্ট, ফুল এবং দশ হাজার টাকার প্রাাইজ বন্ড দেয়া হয়। স্বপ্নজয়ী মায়েরা হলেন  মোছাঃ নাজমা রহিম, দিনাজপুর, তার এক সন্তান বিচারপতি এম. এনায়েতুর  রহিম এবং আরেক ছেলে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম,এমপি, স্বপ্নজয়ী অন্যমায়েরা হলেন ফিরোজা বেগম, নবীনগর, বি.বাড়ীয়া, মানিকগঞ্জ সাটুরিয়ার মানিক জান, আরতী রপানী বনিক দাসোরা, মানিকগঞ্জ এবং মীরাদে বড়লেখা, মৌলভীবাজার প্রমুখ।

 

(মোহাম্মদ আবুল খায়ের)
জনসংযোগ কর্মকর্তা
মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়
ফোন ঃ ৯৫৪৫২২৫, মোবাইল ঃ ০১৭১৬-০৬৬৮৮৮।

 


Share with :
Facebook Facebook